ব্রেকিং নিউজ

উত্তাল প্যারিস৷ জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে গণবিক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ

উত্তাল প্যারিস৷ জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে গণবিক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ৷ বিদ্রোহের আগুনে জ্বলছে রাজধানী প্যারিস৷ রাস্তায় রাস্তায় পোড়ানো হচ্ছে সরকারি যানবাহন৷ ভস্মীভূত সরকারি কার্যালয়৷ প্রতি মুহূর্তে চলছে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ৷

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে স্থানীয় প্রশাসনের তরফে কড়া পদক্ষেপেও লাভ হয়নি৷ ক্ষুব্ধ জনতাকে বাগে আনতে এবার চূড়ান্ত পদক্ষেপ নেওয়ার পথে হাটতে চলেছে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ৷ দেশে জরুরি অবস্থা জারির কথা ভাবা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফরাসি সরকারের মুখপাত্র বেঞ্জামিন গ্রিভাঁ৷ কেননা, গত এক দশকে এতটা উত্তাল হয়ে ওঠেনি প্যারিস৷ ফলে, পরিস্থিতি যে ভয়াবহ তা বুঝতে পেরেছেন প্রশাসনের শীর্ষ কর্তারা৷

ANALYSIS: The savage violence in Paris was not a protest, it was an insurrection

সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার আগে আজ, সোমবার প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করতে পারেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ৷ পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরবর্তী ক্ষেত্রে প্রশাসনের তরফে আরও কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যায়, তা নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা হওয়ার কথা৷

জি-২০ সম্মেলনে আর্জেন্টিনা সফরে ছিলেন ফারসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ। সফর কাটছাঁট করে দেশে ফিরেই প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন তিনি৷ এদিন দেশে ফিরেই জনতার বিক্ষোভে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন তিনি৷ ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কত, তা জানাতেও স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেন ম্যাক্রোঁ৷

Yellow vests: Who were the rioters who wreaked havoc and destruction in Paris?

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত তিন সপ্তাহ আগে ফ্রান্সের গাড়ি চালকেরা ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলন শুরু করেন৷ পরে, তা গণ আন্দোলনের রূপ নেয়৷ জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে গত দু’সপ্তাহ ধরে উত্তাল প্যারিস৷ প্রতিবাদের অঙ্গ হিসাবে

French government says no plans to bring back state of emergency

বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে হলুদ ও লঙ্কা ছুঁড়তে থাকেন৷ পুলিশও পালটা কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে৷ এখনও পর্যন্ত ৪০০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে জখম হয়েছেন অন্তত ১১৩ জন৷ জনতার পালটা মারে জখম হয়েছেন ২৪জন পুলিশ কর্মী৷

তবে, এই উত্তপ্ত পরিস্থিতির মাঝে বারংবার বিবৃতি দিয়ে ক্ষোভের আগুন দফায় দফায় বাড়িয়েছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ৷ সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, জ্বালানি তেলের উপর চাপানো অতিরিক্ত কর কোনওভাবেই কমানো হবে না৷

French government set for crisis talks after 'yellow vest' riots

প্রেসিডেন্টের এই বিবৃতির পর পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হতে খুব বেশি সময় লাগেনি৷ প্যারিসের প্রধান সড়ক সজেঁ লিজে ঘিরে চলতে থাকে বিক্ষোভ৷ বিক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে৷ সরকারকে পর্যুদস্ত করতে বিক্ষোভকারীরা বেছে নেন প্যারিসের পর্যটন কেন্দ্রগুলি। দেশের প্রকৃত অবস্থা বোঝাতেই এই পদক্ষেপ বলে জানানো হয়েছে৷

About editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com