ব্রেকিং নিউজ

কী ভাবে সারিয়ে তুলবেন অস্বস্তিকর দাদ?

শীত পড়লে অনেকেই নানা রকমের চর্মরোগে আক্রান্ত হন। এর মধ্যে রিং ওয়ার্ম বা দাদ অন্যতম। দাদ এক ধরনের চর্মরোগ। চিকিৎসা পরিভাষায় একে ডার্মাটোফাইটোসিস বলা হয়। এই রোগ মূলত কিছু ফাঙ্গাস ঘটিত সংক্রমণের কারণে হয়ে থাকে। দাদ বা রিং ওয়ার্ম সাধারণত শরীরের যে কোনও অংশেই হতে পারে। এটি অত্যন্ত ছোঁয়াচে রোগ। তাই বাড়ির কারও হলে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসা শুরু করা উচিত। না হলেই বিপদ!

দাদ বা রিং ওয়ার্মের লক্ষণ:

দাদ হলে চামড়ার ওপর গোল চাকার মতো, লালচে রঙের ক্ষতর সৃষ্টি হয়। দাদের সংক্রমণ যত ছড়ায়, ততই এটি আকারে বাড়তে থাকে। ক্ষত স্থান মারাত্মক চুলকাতে থাকে৷ ক্ষত স্থান থেকে কখনও শুকনো চামড়া ওঠে, কখনও বা জল ভরা ফুসকুড়ি বের হয়।

দাদ বা রিং ওয়ার্ম প্রতিরোধের উপায়:

১) আক্রান্ত স্থানটি যতটা সম্ভব খোলা রাখুন। জামা-কাপড় নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন। কাচা, পরিষ্কার জামা-কাপড় পরুন।

২) ক্ষতস্থান শুকনো রাখার চেষ্টা করা, আক্রান্ত স্থানে যতটা সম্ভব সাবান বা তেল না লাগানোই ভাল।

৩) আক্রান্ত স্থান উষ্ণ জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে শুকিয়ে নিন। প্রয়োজনে চিকিত্সকের পরামর্শ অনুযায়ী, ওষুধ বা মলম ব্যবহার করুন।

About editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com