ব্রেকিং নিউজ

আটা-ময়দার খাবার বেশি খান? অজান্তেই বাড়ছে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি!

অনেকেই মনে করেন, ভাতের বদলে রুটি খেলে শরীর সুস্থ আর ঝরঝরে থাকে বেশি। পেট পরিষ্কার রাখার জন্যেও গমের তৈরি নানা উপাদানের উপরেই ভরসা রাখেন অনেকে। কিন্তু জানেন কি, রুটি বা আটা-ময়দার খাবার খাওয়ার ফলে আপনার শরীরে কী কী রোগ বাঁধতে পারে? আসুন জেনে নেওয়া যাক রুটি বা আটা-ময়দার খাবার থেকে শরীরে ঠিক কী কী সমস্যা তৈরি হতে পারে…

গমে উপস্থিত থাকে অতিরিক্ত গ্লুটেন যা সহজে হজম হতে চায় না। তাই হজমের সমস্যা হতে পারে। এই গ্লুটেন থেকেই অনেক সময় পেটের নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়। ‘আমেরিকান জার্নাল অব ক্লিনিকাল নিউট্রিশন’-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, পাঁউরুটি খাওয়ার পর শরীরে পরিপাকে বেশ কিছু পরিবর্তন হয়। এর প্রভাবে শরীরের বিশেষ কিছু হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায় যা মানসিক অবসাদ বা ডিপ্রেশনের মতো সমস্যাকে বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়।

একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, গমে থাকা গ্লুটেন নামের উপাদান হজম হতে অনেকটাই সময় নেয়। আর এই গ্লুটেন হজম হওয়া মানেই বাড়তে শুরু করে রক্তে শর্করার মাত্রা। ফলে ইনসুলিনের ক্ষরণও বেড়ে যায়। দিনের পর দিন এমনটা চলতে থাকলে টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বহুগুণ বৃদ্ধি পায়। সেই কারণেই যাদের পরিবারে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রয়েছে, চিকিৎসকেরা তাদের গমের তৈরি খাবার এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, গমের তৈরি খাবার খেলে কোলেস্টেরলের সমস্যাও বৃদ্ধি পেতে পারে। তাছাড়া, গমের তৈরি খাদ্য উপাদান ত্বকের বয়স বাড়িয়ে দিতে পারে। ত্বক কুচকে যায়, ত্বকে বলিরেখা দেখা দিতে পারে। এ ছাড়াও গমের তৈরি খাবার-দাবার বেশি পরিমাণে খেলে অকালে চুল ঝরে গিয়ে টাক পড়ে যাওয়ার সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, আটা-ময়দা দিয়ে তৈরি কোনও খাবার খেলে খাওয়ার পর শরীরে একদিকে যেমন শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পায়, তেমনি কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণও বাড়তে শুরু করে। ফলে ওজন বাড়তে শুরু করে। বেড়ে যায় উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাও।

About editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com