ব্রেকিং নিউজ

বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ২৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

নানা আয়োজনে উদযাপন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের ২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

Image may contain: 15 people, people standing and outdoor

শুক্রবার সকালে এ উপলক্ষে ধানমন্ডিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

Image may contain: 8 people, food and outdoor

পরে বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফেরাত কামনায় মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত শেষে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের নেতাকর্মীরা কেক কেটে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেন।

Image may contain: flower and food

বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. নাজিম ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নোমান হোসাইন তালুকদারের নেতৃত্বে এই সকল কর্মসূচি পালন করা হয়।

Image may contain: 15 people, people standing and wedding

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেটর বিকাশ মজুমদার জয়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কে এম খালিদ বিন সাঈদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এম সাচ্ছু আহমেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মো. তৌহিদুল ইসলাম তুহিন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন ভূইয়া রাসেল, মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক কুদরতে  এলাহী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি রিপন মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, ঐতিহ্যবাহী সেন্ট্রাল ল’ কলেজের সভাপতি মো. আবু তাহের রিমন ও সাধারণ সম্পাদক কাজী মামুনুর রহমান মাহিম সহ বিভিন্ন জেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও ল’ কলেজ শাখার নেতৃবৃন্দ।

কর্মসূচি শেষে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সংগঠনের সভাপতি মো. নাজিম বলেন, বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদ, আইনের শিক্ষার্থীদের মাঝে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে গড়া অন্যতম সর্ববৃহৎ ছাত্র সংগঠন। আর এই সংগঠনটি ১৯৯৬ সালের ২৯ শে মার্চ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় প্রতিষ্ঠিত হয়।

তিনি বলেন,১৯৯৬ সালের ২৯ মার্চ পথচলা শুরু করে আজকে প্রায় সকল পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়, ল কলেজ  থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি জেলায় রয়েছে সংগঠনটির অবাধ পদচারণা। এর রয়েছে প্রায় ১২০টি  শাখা কমিটি। 

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক নোমান হোসাইন বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদ  শিক্ষা, শান্তি, শৃংখলা ও ন্যায়নীতি শ্লোগানকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যেকোন দুঃসময়ে এই সংগঠনের নেতা-কর্মীরা নিঃস্বার্থভাবে দলের জন্য কাজ করে গেছেন। ভবিষ্যতেও কাজ করে যাবেন। 

তিনি বলেন, বিএনপি-জামাতের দুঃশাসনের সময়, ওয়ান-ইলেভেনে নেত্রীর মুক্তি আন্দোলনসহ সকল আন্দোলন সংগ্রামে আইন-অঙ্গন থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে সংগঠনটির অগ্রণী ভূমিকা ছিল। এসব আন্দোলনে ভূমিকার কারণে এই সংগঠনের একাধিক নেতা কর্মী কারাবরণ ও করেছেন। আমাদের খেয়াল রাখতে হবে যেন সেই দুঃসময় আর ফিরে না আসে। 

About editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com