ব্রেকিং নিউজ

প্রবল বৃষ্টিতে ভারতে মৃত কমপক্ষে ৩৪, চূড়ান্ত বিপর্যস্ত রাজধানী মুম্বই

প্রবল বৃষ্টিপাতের জেরে বিপর্যস্ত দেশের বাণিজ্য নগরী। বেহাল দশা পুনে ও  থানে-সহ মহারাষ্ট্রের অন্যান্য জেলারও। ইতিমধ্যে বৃষ্টিজনিত কারণে ঘটা দুর্ঘটনায় মুম্বই, পুনে ও থানের বিভিন্ন এলাকায় মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৩৪ জনের। জখম হয়েছেন আরও অনেকে। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে মঙ্গলবার রাজ্যজুড়ে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে ফড়ণবিস সরকার। সোমবার রাতে মুম্বই পুরসভার কমিশনারও সমস্ত স্কুল এবং কলেজ বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করেছেন।

মহারাষ্ট্র প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার গভীর রাতে প্রবল বৃষ্টির জেরে মালাড-পূর্বের পিমপ্রিপড়া এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়ি ভেঙে পড়ে। এর জেরে এখনও পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। জখম হয়েছেন আরও ১৩ জন। ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়ে রয়েছে আরও অনেকে। তাদের মধ্যে ১০ বছরের একটি মেয়েও রয়েছে বলে সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর।

তাদের উদ্ধার করার চেষ্টা চালাচ্ছেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। বৃহন্মুম্বই পুরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার সকালে কুরার গ্রামে কিছু কাঁচা বাড়ির দেওয়াল ভেঙে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করেছেন দমকল ও এনডিআরএফ-এর কর্মীরা। গত ৪৮ ঘণ্টায় প্রায় ৫৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। যার ফলে পরিস্থিতি আয়ত্তের বাইরে চলে গিয়েছে।

অন্যদিকে সোমবার রাত ১টা ১৫ মিনিট নাগাদ পুনের অম্বেগাঁও এলাকার সিংবাদ কলেজে পাঁচিল ভেঙে কমপক্ষে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ কল্যাণের ন্যাশনাল উর্দু স্কুলের দেওয়াল ভেঙে মারা যায় তিনজন। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত ৩৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেলেও বিভিন্ন জায়গায় ধ্বংসস্তূপের মধ্যে অনেকে আটকা পড়ে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গত পাঁচদিন ধরে চলা বৃষ্টিপাতে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন জায়গায়। তবে তা আরও খারাপ হয়েছে সোমবার থেকে। গত একদশকে এই রকম বৃষ্টিপাত হয়নি বলেও দাবি করা হয়েছে আবহাওয়া দপ্তরের তরফে। এর ফলে থমকে গিয়েছে বিমান এবং ট্রেন পরিষেবাও। মোট ৫৪টি ফ্লাইট অন্য রুটে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে।বাতিল করা হয়েছে ৫২টি ফ্লাইট। লোকাল ট্রেন ধীরগতিতে চালানো হলেও বাতিল হয়েছে বেশিরভাগ দূরপাল্লার ট্রেন। বৃষ্টির জেরে জলমগ্ন হয়ে আছে রাজ্যের বিভিন্ন রাস্তাও। ফলে সড়কপথেও বিপর্যস্ত হয়েছে যান চলাচল।

এপ্রসঙ্গে পুনের ইন্ডিয়ান মেটেরিওলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট(আইএমডি)-র আধিকারিক অনুপম কাশ্যপী জানান, গত পাঁচদিন ধরে চলা বৃষ্টির জেরে মহারাষ্ট্রের পরিস্থিতি খুব ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে রাজ্যের উত্তরাংশের পরিস্থিতি খুব খারাপ। আস্তে আস্তে দক্ষিণ দিকেও বাড়ছে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। পাঁচদিন বৃষ্টিতে কোঙ্কন, গোয়ার অবস্থাও শোচনীয়।

ইতিমধ্যে মালাড এলাকায় দেওয়াল ভেঙে মৃতুর ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিস। মৃতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, “মালাডে দেওয়াল ভেঙে মৃত্যুর খবর শুনে খুবই দুঃখ পেয়েছি। মৃতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই। পাশাপাশি জখমদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করি। মৃতদের পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।”

About editor

Leave a Reply

Your email address will not be published.

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com